একগুচ্ছ গল্প
হামিদ কায়সার
আফসানা বেগম
কেকা অধিকারী
রুখসানা কাজল
কাকলী আহমেদ
মির্জা গোলাম সারোয়ার

স্মরণ
কবি আবুল হোসেন

শ্রদ্ধাঞ্জলি
নভেরা আহমেদ

                                               বিশেষ রচনা
   হোমারের জন্য প্রশস্তিগাথা
অনুবাদ : মাসরুর আরেফিন

ভ্রমণ
চিত্রিত মোম ও রঙের কনসার্ট
  মঈনুস সুলতান

নিবন্ধ
গঙ্গাপাড়ের মিষ্টি আর পদ্মানদীর ইলিশ
শাকুর মজিদ

বিশ্বসাহিত্য
ইয়াসুনারি কাওয়াবাতার গল্প
কল্যাণী রমা

ধারাবাহিক উপন্যাস
রূপে তোমায় ভোলাবো না
সৈয়দ আনওয়ারুল হাফিজ

অস্ট্রেলিয়ার চিঠি
ফজল হাসান

শিল্পকলা
নাজিব তারেক

রম্য রচনা
তাপস রায়

ফেসবুক থেকে

কবিতা
কামরুল হাসান
বদরুন নাহার
লীনা ফেরদৌস
শাবাব আহমেদ

৮ বর্ষ ৯ সংখ্যা
এপ্রিল ২০১৬

লেখক-সংবাদ : ফেসবুকে মজারু ছবির সিরিজে মেতেছেন সৈয়দ তারিক* ইংরেজি সাহিত্যে সময় যাচ্ছে কামরুল হাসানের * যমজ অনুবাদগ্রন্থের জননী হচ্ছেন কল্যাণী রমা* গল্পের পর গল্প ভাসিয়ে নিচ্ছে মাসরুর আরেফিনকে* সাংবাদিকতায় ডুবসাঁতার দিচ্ছেন মুজতবা আহমেদ মুরশেদ* পিতৃত্ব-ছুটিতে যেতে চাইছেন মজনু শাহ* বাড়ির পাশের ‘আরশি নগর’ নিয়ে ঢাউশ কারবার শাকুর মজিদের* হামিদ কায়সার এখন সার্বক্ষণিক গল্পকার* মারিয়া বার্গাস য়োসাকে নিয়ে দারুণ গ্রন্থ বের করে শরৎনিদ্রায় রাজু আলাউদ্দীন!* গদ্যে-গল্পে প্রতিদিন লেখার টেবিল সাজাচ্ছেন জয়া ফারহানা* টিভিতে সাহিত্যের অনুষ্ঠান করছেন মাহবুব আজীজ* প্রতি ভোরে নাহিদ আশরাফীর সঙ্গী একটি কবিতা-কলম* দুটি জেলায় মঞ্চায়নের জন্য নাটক লিখছেন মাহফুজা হিলালী* ডাক্তারি চেম্বার গুটিয়ে আবার কবিতাচর্চায় মিজানুর রহমান কল্লোল* উপন্যাস পরিমার্জনা করছেন মিনার মনসুর* আরো একটি দৈনিকের সাহিত্য সম্পাদক রনজু রাইম* সফল অস্ত্রোপচার শেষে স্বস্তিতে অদিতি ফাল্গুনী* মহান লেখকদের জন্ম-মৃত্যু দিবস বাদ যাচ্ছে না মাসুদুজ্জামানের, দশ হাতে লিখছেন* ‘আন্দাজি কথার’ দার্শনিকতায় হামীম কামরুল হক
সম্পাদক

উপদেষ্টা সম্পাদক
বিদেশ সম্পাদক
প্রচ্ছদচিত্র
ওয়েব ডিজাইন
: মারুফ রায়হান

: সেজান মাহমুদ
: ওয়াসিমা ওয়ালী
: নাবেদ
: এসএম কাফি

আমরা পাঠকদের কাছে অঙ্গীকার করেছিলাম বাংলামাটি নিয়মিত বেরুবে। সে চেষ্টা আমাদের অব্যাহত থাকছে, তবে সেজন্যে লেখকদের সক্রিয় অংশগ্রহণই জরুরি বলা বাহুল্য। যথারীতি এবারও বিষয়বৈচিত্রে ভরপুর বাংলামাটি। বেশ ক’টি ধারাবাহিক লেখা এখন থাকছে এতে। বাংলামাটি তো কেবল সাহিত্যের মুখপত্র নয়, এতে সমাজ-সংস্কৃতির ছায়াও আমরা দেখতে চাই। তাই বিগত সংখ্যাগুলোর মতো সমসাময়িক আলোচিত বিষয় এবং সাংস্কৃতিক আয়োজনের আলোকপাতও জায়গা করে নিয়েছে। বাংলামাটি চায় নবীনকে বরণ করে নিতে, নবীনের পরিচর্যা করতে। সেইসঙ্গে পিছনে ফেলে আসা সময়ের দিকেও ফিরে তাকাতে। ফিরে তাকাতে গোটা পৃথিবীর দিকে। বিশ্বসাহিত্য ভাণ্ডারের রস আহরণ করতে। আর সম্মান জানাতে প্রাজ্ঞ প্রবীণদের। সাহিত্য সময়ের শাঁস তুলে ধরে, তাতে বাঁধাই করা থাকে সমাজের ছবি। কিন্তু সাহিত্য জ্ঞানের সমান্তরালে আনন্দও দিয়ে থাকে। গভীর আনন্দ। অপার দুঃখের ভেতর নিঃশব্দে বয়ে চলা এক অসামান্য বিজলিরেখা। প্রিয় পাঠক ভালো থাকুন, সাহিত্যের সঙ্গেই থাকুন।
marufraihan71@gmail.com

সাক্ষাৎকার : জীবনকে ব্যবচ্ছেদ করাই আমার কাজ

সাক্ষাৎকার গ্রহণ করেছেন মাসউদুল হক
শাহাদুজ্জামান বর্তমান বাংলা কথাসাহিত্যের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ লেখক। তবে শুধু কথাসাহিত্যের গুরুত্বপূর্ণ না বলে শিল্প-সাহিত্য জগতের একজন গুরুত্বপূর্ণ লেখক বলাই শ্রেয়। কেননা, কথাসাহিত্যিক হিসেবে পরিচিতি বিস্তৃত হলেও তিনি চলচ্চিত্র, অনুবাদ, সাক্ষাৎকার গ্রহণ, নাটক, ... বিস্তারিত

গল্প : মানিপ্ল্যান্টের খোঁজে

ফয়জুল ইসলাম
শিহাব মেয়েটার বিষাদগ্রস্ত চোখের দিকে তাকায় এবং খুবই আশ্চর্য হয় সদা হাসিখুশি মেয়েটার উজ্জ্বল চোখে বিষাদের প্রগাঢ় ছায়া দেখতে পেয়ে যখন মেয়েটা শিহাবকে বলে: মানিপ্ল্যান্টটা মইরাই গেল, দেখলা! যুথি এত দায়িত্বজ্ঞানহীন মানুষ! ... বিস্তারিত

রবীন্দ্রনাথের জাপানযাত্রার ১০০ বছর

ড. মাহফুজা হিলালী
আজকে আমরা বাংলা ১৪২৩ সালে দাঁড়িয়ে। ঠিক একশো বছর আগে বাংলা ১৩২৩ সালের ২০ বৈশাখ প্রথমবার জাপানের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিলেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। সে দিন রবীন্দ্রনাথের সাথে ছিলেন অ্যানড্রুজ, পিয়ার্সন ও মুকুল দে। ... বিস্তারিত

বিশেষ রচনা : বলা না-বলা

আফসানা বেগম
‘আজকের বাঁধাকপিটা দেখেছ?’‘কেন, কী দেখব?’‘আহা দেখই না, এত বড়ো আর এত ফ্রেশ বাঁধাকপি হয় নাকি! যাও দেখ।’‘শোনো, আজ সন্ধ্যায় ঝিনুক আসবে।’রুমানার এই কথাটায় কোনো প্রতিক্রিয়া ... বিস্তারিত

অনুবাদ কবিতা : নীড় ছোট,ক্ষতি নেই

কেকা অধিকারী
বুকটা আমার ধক্ করে উঠল। তারপর অকষ্মাৎ কষ্টে সমস্ত অন্তরাত্মা কুঁকড়ে গেল - যেন দীঘির জলে খেলে বেড়ানো মাছটি এইমাত্র কোচবিদ্ধ হয়েছে। ঠিক এমনই সুতীব্র ... বিস্তারিত

বৃদ্ধাশ্রম

রায়হান সাহেব বয়স ৬৫ এর কাছাকাছি। চুল আর দাড়ি পেকে ধপধপে সাদা।ঠিকমত হাটতেও পারেন না এবং চোখেও কম দেখেন রিটায়ার্ড করার পর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ছেলে তার স্ত্রীর প্ররোচনায় তাকে বৃদ্ধাশ্রমে রেখে গেছে। ছেলেকে দেখার আশায়

লিখেছেন মির্জা গোলাম সারোয়ার
... বিস্তারিত

পৌষের রোদের অপেক্ষায়

দুপুরের এই বিষণ্ণ রোদটুকু বড় ভালো লাগে মেঘলার। অথচ কতদিন সে গায়ে মাখেনি এমন রোদ। বারান্দায় এ কোণাটায় দাঁড়ালে রোদটা সম্পূর্ণ এসে জড়াজড়ি হয়ে যায় শরীরের সাথে। দূর থেকে আসা রোদটার তীব্রতা ম্লান হয়ে যায়,

লিখেছেন কাকলী আহমেদ
... বিস্তারিত

অনুবাদ : ইয়াসুনারি কাওয়াবাতার তিনটি গল্প

অনুবাদঃ কল্যাণী রমা
জল  [১৯৪৪]মেয়েটি মানুষটিকে বিয়ে করবার জন্য জন্মভূমি ছেড়ে আসামাত্র, মানুষটিকে মাঞ্চুরিয়ায় চিং-এ্যান পর্বতশ্রেণির আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ দপ্তরে বদলি করে দেওয়া হ’ল। মেয়েটিকে সবচেয়ে যা অবাক করে ... বিস্তারিত

ভ্রমণ : চিত্রিত মোম ও রঙের কনসার্ট

মঈনুস সুলতান
এন্ডি সিল্কের ফতুয়া পরে ল্যাভেন্ডারের অডিকোলন মাখতেই শরীরে ছড়ায় ফ্রেস অনুভূতি। আজ আমি কোথাও যেতে চাচ্ছি না। কিছুদিন হলো আমি আফ্রিকার দক্ষিণাঞ্চলের ছোট্ট রাজ্য সোয়াজিল্যান্ডের ... বিস্তারিত

গঙ্গাপাড়ের মিষ্টি আর পদ্মানদীর ইলিশ
সদর স্ট্রিটের ফুটপাতের বেঞ্চিতে বসে এগ-রোল, সঙ্গে লেম্বু মাসাল্লা সরবত দিয়ে শুরু হয়েছিল কলকাতায় আমার প্রথম সকাল, সে ১৯৯০ সালে। যে তিনদিন কনফারেন্স ছিলো, খাবার

লিখেছেন শাকুর মজিদ
... বিস্তারিত

শিল্পী নাজিব তারেকের স্টুডিওতে
যে কোন মানুষ প্রাকৃতিক ভাবেই যুগপৎ সাধারণ ও অসাধারণ দুটি সত্তা নিজের ভেতর ধারণ করে। সাধারণ সত্তাটি পৃথিবীর সমগ্র মানুষের মত জীবনচক্রের অমোঘ নিয়মে পরিচালিত

লিখেছেন আল ইমরান
... বিস্তারিত

উস্তাদ বাহাদুর হুসেন খাঁ
আমি যখন ১৯৮৪ সনে বহুকাল আমেরিকায় থেকে ঢাকা বেড়াতে গিয়েছিলাম, সে-বার বাহাদুর হুসেন খাঁ সাহেবের একটা সরোদ অনুষ্ঠান করি বড় ভাইয়ের বাড়িতে। তখন তিনি আমার

লিখেছেন ওমর শামস
... বিস্তারিত

হোমারের জন্য প্রশস্তিগাথা

মাসরুর আরেফিন

এ-বইটির শেষ প্রচ্ছদে গ্যেয়টের এক বিখ্যাত উক্তি আছে যে হোমার তাকে ‘সবসময় ঠেলে দেয় আশ্চর্য বিস্ময়ের জগতে।’ সেই কথাটা আর একটু বিশদ করে বলার লোভ সামলাতে পারছি না। গ্যেয়টে একদম কিশোর বয়সেই পড়ে ফেলেন তিনটি বই: আরব্য রজনীর কাহিনী, ইলিয়াড ও অডিসি।১৭ গ্যেয়টের বিখ্যাত উপন্যাস The Sorrows of Young Werther (‘তরুণ ভারথারের দুঃখবিষাদ’, ১৭৭৪), যা ... বিস্তারিত

আজ সাতাশে ডিসেম্বর ২০১৫, রবিবার। সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবস। সকালে শয্যা থেকে নিজেকে ছিন্ন করে কম্পিউটারে এসে বসেছি। ভাবছি আশি (বা একাশি) বছর আগের এই দিনটিরই কথা। ভাবছি? কী করে ভাববো, আমি কি তখন উপস্থিত ছিলাম! তবু ভাবছি। কবিজন্মকে স্মরণ করে শব্দের নৈবেদ্য সাজাতে চাইছি। তাই সবার আগে কবি-জননীকেই ... বিস্তারিত